পর্ব ১ – অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট কি এবং অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েশন কেন করব?

পর্ব ১ – অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট কি এবং অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েশন কেন করব?

এটা একটা পর্ব ভিত্তিক লেখা হবে, যা আপনাকে একটা অ্যামাজন নিস সাইট বিল্ডিং এর জন্য খুঁটিনাটি সব কিছু শিখতে এবং বুঝতে সাহায্য করবে। এই টোটাল প্রজেক্টের সাথে থাকলে আশা করছি আপনি অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে বিস্তারিত বুঝতে পারবেন এবং নিজে নিজেই সেটা শুরু করতে পারবেন।

অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট কি এবং অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েশন কেন করব?

অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট কি?

অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েটে যাওয়ার আগে আমরা আগে দেখি অ্যাফিলিয়েট কি? অ্যাফিলিয়েট শব্দটা অনেকের কাছেই হয়তো বা নতুন মনে হচ্ছে। অফলাইনের কাজে এই ওয়ার্ডটা খুব বেশী ইউজ হয় না। ধরেন আপনি একটা ফার্মেসীর মালিক, আপনি সেখানে সব ধরণের ওষুধ বিক্রি করেন। একটা ক্লিনিকের সামনে আপনার ফার্মেসী অবস্থিত, এখন আপনি কিছু ডাক্তারের সাথে কিছু চুক্তি করলেন। সে চুক্তি অনুযায়ী তারা তাদের প্রেসক্রাইব করা রোগীদের আপনার ফার্মেসীতে পাঠালো। এভাবে আপনার সেল বৃদ্ধি পেলো এবং সাথে ডাক্তার ও কমিশন পেলো।

এখানে ডাক্তার একজন অ্যাফিলিয়েটের ভুমিকায় কাজ করেছেন। ঠিক তেমনি ওয়েবে যেকোন একটা ব্যাপারে আপনাকে এক্সপার্ট হিসেবে ওয়েবসাইট বানাতে হবে এবং সেখানে ওই টপিক মুল্যবান কন্টেন্ট দেওয়া লাগবে।

এক পর্যায়ে আপনি সেখানে নানা পণ্য রিকমেন্ড করে দিতে পারবেন, ফলে সেটা আপনার সাইটের ট্রাস্টেড ভিজিটরেরা কিনবে এবং আপনি একটা পরিমাণ কমিশন আর্ন করবেন।

এখন আসি অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েশনে, অ্যামাজন হলো পৃথিবীর সবচেয়ে বড় ই-কমার্স বা অনলাইনে কেনাকাটার সাইট। কিছুদিন আগে দেখলাম সেখানে গোবর ও বিক্রি হয়, এক কথায় সুই থেকে শুরু করে সব ধরণের ডিজিটাল এবং ফিজিক্যাল পণ্য পাওয়া যায়।

আপনি আপনার সাইটে অ্যামাজনের বিভিন্ন পণ্য নিয়ে প্রোডাক্ট রিভিউ লিখে পাবলিশ করবেন, এবং রিডাররা যখন আপনার লিংক থেকে এসে প্রোডাক্ট কিনবে তখন আপনি কমিশন পাবেন।

 

অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট কেন? আরো অনেক অ্যাফিলিয়েট প্লাটফর্ম তো আছে।

অনেকেই জিজ্ঞেস করে থাকেন, এত্ত সব অ্যাফিলিয়েট প্লাটফর্ম থাকতে শুধু অ্যামাজন কেন? এর পিছনে কিছু কারণ আছে। আমার কাছে অ্যামাজন যেসব কারনে সেরা মনে হয়…

১. পৃথিবীর সবচেয়ে বড় ই-কমার্স সাইট

২. সব ধরণের পণ্য পাওয়া যায়, অর্থাৎ আপনি আপনার পছন্দের যেকোন টপিক নিয়ে কাজ করতে পারবেন

৩. কমিশন কম হলে ও একটা বিশাল বড় এডভান্টেজ আছে, সেটা হলো ধরেন আপনি ১০ ডলারের কোন পণ্য প্রমোট করলেন কিন্তু কেউ একজন আপনার লিংক ধরে অ্যামাজনে গিয়ে ২০০০ ডলারের কেনাকাটা করলো, এখন পুরোটার কমিশনই আপনি পাবেন।

৪. ক্রেতাদের বিশ্বস্ত জায়গা অ্যামাজন

৫. বলা হয়, আমেরিকার প্রতিটা ঘরেই কারো না কারো একটা অ্যামাজন একাউন্ট আছেই

৬. পণ্য ব্যবহার না করে ও ক্রেতাদের রিভিউ পড়ে পণ্য সম্পর্কে সব কিছু জানা যায়

এছাড়া ও আরো অনেক কারণ রয়েছে

 

পরের পোস্টে আলোচনা করব, অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে কি কি প্রয়োজন সেটা নিয়ে।

 

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *